বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১ । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
Dating App

আম্পায়ারের সিদ্ধান্তকে সম্মান জানালেন মাহমুদুল্লাহ

বিশেষ প্রতিনিধি॥ »

প্রথম দুই টি-টোয়েন্টি মতো পাকিস্তানের কাছে শেষ ম্যাচেও হারল বাংলাদেশ। তবে এই ম্যাচে শেষমূহুর্ত পর্যন্ত লড়াই করেছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। যদিও ফলাফল ছাপিয়ে বড় হয়ে উঠেছে আম্পায়ারের একটি সিদ্ধান্ত নিয়ে জন্ম নেওয়া বিতর্ক।

পাকিস্তানের জয়ের জন্য তখন ১ বলে প্রয়োজন ২ রান। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বল করলে তা না খেলার ভঙ্গিতে ক্রিজ ছেড়ে দেন স্ট্রাইকিং প্রান্তে থাকা মোহাম্মদ নাওয়াজ। অথচ রিয়াদ যখন বল ছুঁড়ছিলেন, নাওয়াজ তখন বল মোকাবিলা করার জন্য প্রস্তুত ছিলেন।

সবাইকে অবাক করে আম্পায়াররা ডেড বলের ঘোষণা দেন। এরপর কোনো প্রতিবাদ জানাতে দেখা যায়নি বাংলাদেশকে। শেষপর্যন্ত ‘লিগ্যাল’ ডেলিভারিতে চার হাঁকিয়ে ম্যাচ জিতে নেয় পাকিস্তান।
বিতর্কিত ওই বলের পর আম্পায়ারের সঙ্গে রিয়াদকে কথা বলতে দেখা যায়। কী কথা হয়েছিল আম্পায়ারের সঙ্গে? গণমাধ্যমকে রিয়াদ জানান, আম্পায়ারের কাছে বলটি লিগ্যাল কি না তা-ই শুধু জানতে চেয়েছেন। দিনশেষে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তকেই সমর্থন জানাচ্ছেন তিনি।

রিয়াদ বলেন, ‘আমি শুধু জিজ্ঞেস করেছিলাম ফেয়ার বল ছিল কি না, এর বাইরে কিছু না। নাওয়াজ শেষ মুহূর্তে সরে দাঁড়ায়। আম্পায়ারের কলই চূড়ান্ত। আমরা আম্পায়ারের সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাচ্ছি।’

নাওয়াজ বল ছেড়ে দেওয়ার পর রিয়াদরাও খুব বেশি উচ্চবাচ্য করেননি। ডেড বল হিসেবেই মেনে নেন ডেলিভারিটিকে। যদিও আম্পায়ার বিতর্কিত সিদ্ধান্ত না দিলে ফলাফল বাংলাদেশের পক্ষে আসতে পারত।

জয়ের এত কাছে গিয়ে শূন্য হাতে ফেরায় রিয়াদ স্বভাবতই হতাশ। তিনি বলেন, ‘কিছুটা তো হার্টব্রেকিং। জয়ের খুব কাছাকাছি চলে গিয়েছিলাম। দুর্ভাগ্যজনকভাবে হয়নি।’

মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-২০তে মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ-পাকিস্তান। আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে মাত্র ১২৪ রান সংগ্রহ করে টাইগাররা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৫ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে সফরকারীরা।

শেয়ার করুন »

বিশেষ প্রতিনিধি॥ »

মন্তব্য করুন »