পাকিস্তানে নির্বাচনের নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাড়ে ৬ লাখ সদস্য

অনলাইন ডেস্ক

নির্বাচনে নিরাপত্তা দিতে পাকিস্তানজুড়ে প্রায় সাড়ে ছয় লাখ নিরাপত্তা কর্মী মোতায়েন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবারের সাধারণ নির্বাচনে ১২.৮৫ কোটিরও বেশি নিবন্ধিত ভোটারকে তাদের ভোট প্রদান করবে।

পাকিস্তানে সাম্প্রতিক সহিংসতার পরিপ্রেক্ষিতে নিরাপত্তা জোরদার করা জরুরি। সর্বশেষ বুধবার বেলুচিস্তান প্রদেশে নির্বাচনী অফিস লক্ষ্য করে দুটি বিধ্বংসী বোমা বিস্ফোরণে কমপক্ষে ২৫ জন নিহত এবং ৪০ জনেরও বেশি আহত হয়েছে।

রেডিও পাকিস্তান জানিয়েছে, ভোটারদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রায় সাড়ে ছয় লাখ নিরাপত্তা কর্মী মোতায়েন করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে পুলিশ, বেসামরিক সশস্ত্র বাহিনী এবং সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা। তিন স্তর বিশিষ্ট ব্যবস্থায় সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা ভোটকেন্দ্রের বাইরে দায়িত্ব পালন করবেন।
বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ চলবে।

পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন (ইসিপি) অনুসারে, জাতীয় পরিষদের আসনের ৫,১২১ জন প্রার্থীর মধ্যে মোট ১২,৮৫,৮৫,৭৬০ জন নিবন্ধিত ভোটার ভোট দেওয়ার যোগ্য।

চারটি প্রাদেশিক পরিষদের জন্য, ১২,১২৩ জন পুরুষ, ৫৭০ জন মহিলা এবং দু’জন ট্রান্স-জেন্ডার সহ ১২,৬৯৫ জন প্রার্থী মাঠে রয়েছেন।

বুধবার রাত পর্যন্ত স্বচ্ছ ব্যালট বাক্স ও অন্যান্য প্রাসঙ্গিক নির্বাচনী সামগ্রী প্রবেশের আগে ব্যালটের গোপনীয়তা রক্ষার জন্য ব্যালট বাক্স, ব্যালট পেপার এবং বিশেষ পর্দা পরিবহনের প্রক্রিয়া সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে সুষ্ঠুভাবে চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Verified by MonsterInsights