যাত্রাবাড়ীতে পৃথক ঘটনায় ঢাবি শিক্ষার্থীসহ তিনজনের মৃত্যু

ডিএমসি প্রতিনিধি

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে পৃথক ঘটনায় এক ঢাবি শিক্ষার্থীসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেন- সুমাইয়া (২০), নয়ন হোসেন (২০) ও ইমরান হোসেন (২৩)।

যাত্রাবাড়ী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ফারজানা আক্তার জানিয়েছেন, সুমাইয়া অত্রথানাধীন মাতুয়াইল মৃধাবাড়ি পরিবারের সাথে থাকতেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিলেন। তিনি কুমিল্লা জেলার বরুড়া উপজেলার জামাল উদ্দিনের মেয়ে। তার জন্ম হয়েছিল সৌদিআরবে।

মৃট সুমাইয়ার পরিবারের বরাদ দিয়ে তিনি জানান, সুমাইয়া খুব জেদি প্রকৃতির ছিল। সে বাসায় তার রুমে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলছিল। তারা দেখতে পেয়ে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তার পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিনা ময়নাতদন্তে মরদেহটি হস্তান্তর করা হয়েছে।
অপরদিকে, একই থানার ধলপুর সুতিখালপাড় নিজ বাসায় নয়ন হোসেন (২০) গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন।
তিনি নারায়ণগঞ্জ রূপগঞ্জের চনপাড়ার মো. শাহ আলমের ছেলে।

উপ-পরিদর্শক (এসআই) ‘৯৯৯’ নম্বরে সংবাদ পেয়ে মঙ্গলবার (০৬ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাতে ওই বাসা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে। আইনি প্রকৃয়া শেষে বুধবার সকালে মরদেহটি ঢামেক মর্গে পাঠান।

পুলিশ জানিয়েছেন, নয়ন হোসেনের স্ত্রী বিথি তার মায়ের বাসা কাজলার পাড় বেড়াতে গিয়েছিলেন। ফিরে এসে দরজা বন্ধ দেখে ডাকাডাকি করে কোন সাড়াশব্দ না পেয়ে জানালা দিয়ে দেখতে পান ফ্যানের সাথে ওড়না দিয়ে ঝুলছিল তার স্বামীর লাশ।

এছাড়াও মঙ্গলবার দুপুরে মাতুয়াইল জঙ্গলবাড়ি এলাকার বাসায় মো. ইমরান হোসেন (২৩) নামে এক অটোরিকশা চালক গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন। তিনি ভোলা চরফ্যাশন উপজেলার রসুলপুর গ্রামের মো. জামাল হোসেনের ছেলে। উপ-পরিদর্শক কবির হোসেন তার মৃতেদহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে পাঠিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Verified by MonsterInsights