দিনাজপুরে পিঠা উৎসব

দিনাজপুর প্রতিনিধি

শীত কিংবা গ্রীষ্ম মানেই ঘরে ঘরে মুখরোচক পিঠাপুলির আয়োজন। তবে কালের বিবর্তনে হারিয়ে যাচ্ছে বাঙালিদের পিঠাপুলিসহ অনেক ঐতিহ্য। এখন আবার নানা ধরনের ফাস্ট ফুড খাবারের কারণে হারিয়ে যাচ্ছে অনেক পিঠাপুলি। কিন্তু গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্য ধরে রাখতে ও ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের পিঠার সাথে পরিচয় করাতেই দিনাজপুরের হাকিমপুরে দুই দিনব্যাপী পিঠা উৎসব শুরু হয়েছে।পিঠার নানান স্বাদ নিতে এই পিঠা উৎসবে ছিলো সকল বয়সের মানুষের উপচেপড়া ভীড়।

পিঠাপুলির সাথে শিক্ষার্থীদের মাঝে তুলে ধরতেই দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার ডাঙ্গাপাড়া মডেল স্কুলে শুরু হয়েছে এই দুই দিনব্যাপী পিঠা উৎসব। ডাঙ্গাপাড়া মডেল স্কুল মাঠে ৯টি স্টলে অর্ধশতাধিক প্রকারের পিঠাপুলির পসরা সাজিয়ে বসেছেন বিভিন্ন বয়সী নারী-পুরুষরা। উদ্বোধনের পর থেকেই পিঠা উৎসবে ছিলো সব বয়সী মানুষের উপচেপড়া ভিড়, স্টলগুলোতে তারা নিচ্ছেন পিঠাপুলির নানান স্বাদ।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় হাকিমপুর উপজেলার ডাঙ্গাপাড়া মডেল স্কুলের আয়োজনে স্কুল চত্ত্বরে ফিতা কেটে দুই দিনব্যাপি এই পিঠা উৎসবের উদ্বোধন করেন খট্টামাধবপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান কাওছার রহমান।
ডাঙ্গাপাড়া মডেল স্কুল মাঠে প্রতিটি স্টলে ধান সেমাই, ভাপা, পুলি দুধ, পুলি, পাটিসাপটা, ঝিনুক পুলি, জামাই সোহাগী, গোলাপ, কানমুচুরি, পুডিং, পায়রা, তেল পিঠা, দুধ চিতাই, মুঠা পিঠা, ক্ষীর, রসগোল্লা, কেক, গোলাপ ফুল, তেলেভাজা রসপিঠা, রোল পিঠা, লাভ পিঠা, শিম ফুল পিঠা, ডালবড়া, নারিকেল পিঠা, নকশি পিঠা, নয়নতারা পিঠাসহ প্রায় অর্ধ শতাধিক পিঠার পসরা। এমন আয়োজনে খুশি এ অঞ্চলের মানুষ।

হারিয়ে যাওয়া পিঠাপুলির সাথে প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের পাশাপাশি ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের পরিচয় করাতেই এমন আয়োজন করায় অভিনন্দন জানায় স্থানীয় অভিভাবক ও সুধি মহল। এতে হারিয়ে যাওয়া পিঠার ঐতিহ্য ও স্বাধ ফিরে আসবে।

হাকিমপুর ডাঙ্গাপাড়া মডেল স্কুলের পরিচালক আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, আমাদের সমাজ থেকে পিঠা হারিয়ে যাচ্ছে। পিঠা কি এবং কত ধরনের আছে তা তারা জানেই না। এখানে ৯টি স্টলে ৫২ আইটেমের পিঠা তৈরি করে পসরা সাজানো হয়েছে। স্কুলের ছেলে-মেয়েরা এবং স্থানীয় অভিভাবকরা এই পিঠার সাথে পরিচিত হচ্ছে এবং এর স্বাদ গ্রহণ করছেন। আয়োজনে ব্যাপক সাড়া পাওয়ায় আগামীতে আরও বড় আয়োজনে করা হবে বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Verified by MonsterInsights