চট্টগ্রামে প্রথম দিনেই পাঠকে মুখর বইমেলা

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

চট্টগ্রাম নগরের অন্যতম প্রাকৃতিক সবুজ কেন্দ্র সিআরবি। এখানেই শুরু হয়েছে বইমেলা। নয়নাভিরাম প্রকৃতি ও বর্ণময় বই-এক সঙ্গে পাওয়ায় বইমেলা প্রথম দিনেই পাঠক-লেখক ও দর্শকের পদচারণায় মুখর হয়ে ওঠে। পড়ন্ত বিকাল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই জমজমাট হয়ে ওঠে।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেমনের (চসিক) আয়োজন ও চট্টগ্রাম সৃজনশীল প্রকাশক পরিষদ, চট্টগ্রাম নাগরিক সমাজ, বীর মুক্তিযোদ্ধা, লেখক, সাংবাদিক, শিক্ষাবিদ ও সাহিত্য-সাংস্কৃতিক সংগঠনের সহযোগিতায় এ বইমেলা হচ্ছে।

শুক্রবার বিকেলে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে বইমেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন চসিক মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী। আগামী ২ মার্চ পর্যন্ত প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা এবং ছুটির দিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত বইমেলা চলবে। প্রথম দিনে ‘গৗরবগাথায় শেখ হাসিনা’ এবং ‘৬৯ থেকে ৭১’ দুটি গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।
চসিক মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, একুশ আমাদের চেতনার উৎস। একুশের চেতনাকে ধারণা করে আমরা এগিয়ে যাব এ হোক আমাদের শপথ।

পাঠকরা মেলায় আসুন। আপনাদের নতুন প্রজন্মকেও নিয়ে আসুন। মাদকমুক্ত, সঙ্কীর্ণতামুক্ত সমাজ গড়তে শিশুদের হাতে বই তুলে দিন।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায় বলেন, বইমেলার সঙ্গে আমাদের ইতিহাস, ঐতিহ্য জড়িত। বই মেলাকে সফল করতে মেলার নিরাপত্তার জন্য আমরা সচেষ্ট থাকব।

জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান বলেন, বইমেলার উপযোগী কোন খাস জমি পাওয়া গেলে সেখানে বই মেলাসহ বিভিন্ন মেলা আয়োজনের জন্য স্থায়ীভাবে বরাদ্দ দেয়া হবে ইনশাআল্লাহ।

বাংলাদেশ রেলওয়ের (পূর্বাঞ্চল) মহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ নাজমুল ইসলাম বলেন, মেলার আয়োজন করায় চট্টগ্রাম সিটি মেয়র রেজাউল ও সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানাই।

চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মুহম্মদ তৌহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর আহাম্মদ, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান, প্যানেল মেয়র গিয়াস উদ্দিন, আফরোজা কালাম, চসিকের শিক্ষা স্থায়ী কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর ড. নিছার উদ্দিন আহমেদ মঞ্জু, সচিব খালেদ মাহমুদ, মেয়রের একান্ত সচিব মুহাম্মদ আবুল হাশেম প্রমুখ।

এবার ৪৩ হাজার বর্গফুটের বইমেলায় ঢাকা ও চট্টগ্রামের ৯২টি প্রকাশনা সংস্থার ১৫৫টি স্টল থাকবে। এর মধ্যে ডাবল স্টল ৭৮টি, সিঙ্গেল ৭৭টি। এবারের বইমেলার বাজেট ৫০ লাখ টাকা। এবারও জাতীয় জীবনে কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য একুশে সম্মাননা স্মারক পদক ও সাহিত্য পুরস্কার দেওয়া হবে। চসিকের তত্ত্বাবধান ও নগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সহযোগিতায় আয়োজন করা হয় ‘ইতিহাস কথা কয়’ শীর্ষক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Verified by MonsterInsights