কুষ্টিয়ায় হাসপাতালে চুরি যাওয়া সেই নবজাতক উদ্ধার

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি:
কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে হাসপাতাল থেকে চুরি যাওয়া নবজাতককে ২৫ কিলোমিটার দূরে বোয়ালিয়া ইউনিয়নের মোল্লাপাড়া থেকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব। এ ঘটনায় অভিযুক্ত পলি আরা খাতুন ও তার মা মাফুজাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সোমবার বেলা ১১টায় কুষ্টিয়া র‌্যাব ক্যাম্পে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র‌্যাব-১২ অধিনায়ক মারুফ হোসেন। তিনি বলেন, তিনদিনের অভিযান শেষে শিশুটিকে আনোয়ারা হাসপাতাল থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে বোয়ালিয়া ইউনিয়নের মোল্লাপাড়া থেকে দুজন অপরাধ চক্রের সদস্যসহ উদ্ধার করতে সক্ষম হই।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এই নবজাতক চুরিতে একটি বিদেশি চক্র জড়িত বলে প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছে র‌্যাব।
নবজাতককে উদ্ধারে দীর্ঘ ২৫ কিলোমিটার পথে সিসিটিভি ফুটেজ পর্যবেক্ষণ করতে হয় র‌্যাবকে। অপরাধী চক্রটি নবজাতককে নিয়ে যাওয়ার সময় একটির পর একটি যানবাহন পরিবর্তন করলেও সিসিটিভি ফুটেজই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে পৌঁছে দেয় সঠিক ঠিকানায়।

মারুফ হোসেন বলেন, প্রথমে হাসপাতালের (আনোয়ারা) সিসিটিভি পর্যবেক্ষণ করি। এরপর অপরাধীর (যে নারী নবজাতকটি চুরি করেন) ড্রেস ও অটোরিকশা চিহ্নিত করি। পরে আনোয়ারা হাসপাতাল থেকে বোয়ালিয়া পর্যন্ত প্রত্যেকটা পয়েন্টে সিসিটিভি ফুটেজ পর্যবেক্ষণ করি। এই পথে অপরাধী চক্রটি তিন-চারটি যানবাহন পরিবর্তন করে। এ থেকে বোঝা যায় চক্রটি অত্যন্ত পেশাদারিত্বের সঙ্গে নবজাতকটি চুরি করেছে।

নবজাতকের নানি রহিমন। তার হাত থেকেই নবজাতকটি নিয়ে যায় পলি আরা খাতুন। রহিমন বলেন, আমি সহজ সরল মনে ওই মহিলার কোলে বাচ্চাকে দিয়েছিলাম। ওকে ফিরে পেয়ে মনে খুব শান্তি লাগছে।

বাবা দীপু বলেন, র‌্যাব আমার সন্তানকে উদ্ধার করে দিয়েছে, তাদের আন্তরিকতার ফলে বুকের ধন ফিরে পেলাম।

সন্তানকে ফিরে পাওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে মা সাফিয়া বলেন, তিনটা দিন খুব কষ্টে কেটেছে। সন্তানকে ফিরে পাওয়ার আনন্দে কথা বলার ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। আমার খুব ভালো লাগছে এখন।

এর আগে ৭ ফেব্রুয়ারি দুপুরে বোরকা পরা এক নারী নবজাতক আরিয়ানকে চুরি করে পালিয়ে যায়। এই হাসপাতালেই ৫ তারিখে সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে জন্ম হয় আরিয়ানের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Verified by MonsterInsights