কর্মীর পায়ের রগ কাটার অভিযোগে নেতার বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম:

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় সালিসী বৈঠকে বাগবিতণ্ডার জেরে মামুনুর রশিদ নামে এক ছাত্রলীগ কর্মীর পায়ের রগ কেটে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্তের নাম তানভির আহমদ ফাহিম, সে স্থানীয় একটি কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক। এ ঘটনায় আহত মামুনকে চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। বর্তমানে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। রবিবার রাতে অভিযুক্তকে আসামি করে আহত মামুনের বাবা লোহাগাড়া থানায় মামলা করেছেন।

লোহাগাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এরশাদুর রহমান রিয়াদ জানান, সন্ত্রাসী হামলায় গুরুতর আহত মামুনুর রশিদ ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তারপূর্বক আইনের আওতায় আনার দাবি জানান তিনি।

লোহাগাড়া থানার ওসি রাশেদুল ইসলাম বলেন, ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ পেয়েছি। এটা দেখে জড়িতদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
মামলার এজাহারে জানা যায়, গত ৮ ফেব্রুয়ারি উপজেলার চুনতি ইউনিয়নের চাম্বি লেক থেকে আসার পথে এক মোটরসাইকেল আরোহী যুগলকে আসামিরা ধাওয়া করে। এসময় স্থানীয়রা ওই যুগলকে আসামিদের কাছ থেকে রক্ষা করেন। পরদিন এ নিয়ে স্থানীয়দের সাথে আসামিদের এক বৈঠক হয়। বৈঠকে মামুনুর রশিদের সাথে আসামিদের বাকবিতন্ডা হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রাতে খেলা শেষে বাড়ি ফেরার সময় উপজেলা সদরের টার্ফ স্পোর্টস এ্যারেনার সামনে মামুনুর রশিদের ওপর হামলা করেন আসামিরা। এতে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তার মাথা ফেটে যায়। পরে আসামিরা তার পায়ের রগ কেটে দেয়। স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহত অবস্থায় মামুনুর রশিদকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
আহত মামুনুর রশিদ উপজেলার আধুনগর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ হরিণা পাঠার পাড়ার আবুল হাশেমের ছেলে ও চট্টগ্রাম কলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Verified by MonsterInsights