ছিনতাই করতে এসে গণপিটুনিতে আধমরা যুবক

জাবি প্রতিনিধি :

ছিনতাই করতে এসে উত্তেজিত জনতার হাতে মারধরের শিকার হয়েছে অজ্ঞাত এক যুবক। এসময় ওই যুবকের শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারধরের কারণে রক্তপাত হতে দেখা গেছে। সোমবার রাত ৯ টার দিকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের এক নার্সারি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মারধরের পরপরই ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আহত যুবককে উদ্ধার করে আশুলিয়া থানা পুলিশ। পরে তাকে ধামরাই সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যান তারা।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, ওইদিন রাত পনে ৯টার দিকে সাভার থেকে অটোরিকশা যোগে তিনজন যাত্রী নবীনগর এলাকায় যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে তারা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন ওই নার্সারি এলাকায় পৌঁছালে ওৎ পেতে থাকা তিন যুবকের মধ্যে একজন চাপাতি হাতে নিয়ে অটোরিকশার গতি রোধ করে। পরে অটোরিকশায় থাকা ব্যক্তিদের ধাওয়া খেয়ে মোটরসাইকেল যোগে দু’জন পালালেও সড়কে পড়ে যান ওই ছিনতাইকারী। এসময় উত্তেজিত জনতা ওই যুবককে গণপিটুনি দেয়। এতে ওই যুবকের শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তপাতের ঘটনা ঘটেছে।

এদিকে, ওই যুবক ও অজ্ঞাতনামা আরো তিনজনের বিরুদ্ধে গত ৩১ জানুয়ারি রাত ৯ টা ৩৩ মিনিটের সময় ছিনতাইয়ের অভিযোগ করেছেন জাবির ৪৫ ব্যাচের শিক্ষার্থী সামিউল হক ভুঁইয়া। ওইদিন সামিউল ও তার দুই বন্ধুর (সাজিদ রশিদ ও খালেক সাদমান) কাছ থেকে একটি আইফোন ও একটি স্মার্ট ফোন ছিনতাই করে তারা। ওইসময়, ৩৩ হাজার টাকা মূল্যের একটি রোড ওয়ারলেস গো এবং মোবাইল ট্রাইপডসহ নগদ টাকা ছিনতাই করে অভিযুক্ত যুবকরা। এবিষয়ে আশুলিয়া থানায় এবং র‍্যাব-৪ বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগীরা।
সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান বলেন, ছিনতাইকারীকে মারধরের খবর শুনে আমরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হই। ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে আমরা গুরুতর আহত অবস্থায় পাই। শুনেছি এ যুবক আরো কিছু ছিনতাইয়ের ঘটনার সাথে জড়িত ছিল। অজ্ঞান থাকায় যুবকের কাছ থেকে এখনো কোন তথ্য উদ্ধার করা যায়নি। এবিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Verified by MonsterInsights