যে কারণে নেতৃত্বে নেই সাকিব

অনলাইন ডেস্ক

গেল বছর এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপের আগ মুহূর্তে সাকিব আল হাসানকে নতুন নেতা ঘোষণা করা হয়। আগে থেকে দুই ফরম্যাটে অধিনায়ক থাকা সাকিবের ওয়ানডে নেতৃত্ব পাওয়ার মধ্য দিয়ে ফের এক অধিনায়কের যুগে ফেরে বাংলাদেশ।

যদিও বিশ্বকাপের পর আর একদিনও অধিনায়ক থাকবেন না এমন কথা আগেই জানিয়েছিলেন সাকিব। তবে ধারণা ছিল সেটি শুধু ওয়ানডেতে। এবার তিন ফরম্যাটেরই নেতৃতৃ ছাড়লেন টাইগার অলরাউন্ডার। তার স্থলাভিষিক্ত হলেন নাজমুল হোসেন শান্ত।

সোমবার বোর্ড সভা শেষে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হোসেন পাপন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ওর সঙ্গে এখন অবধি কালকে পর্যন্ত যেটা কথা হয়েছে; ওর চোখের সমস্যা এখনও যায়নি। কাজেই আমাদের সামনে শ্রীলঙ্কা সিরিজ আছে, তারপর আরেকটা সিরিজ আছে; বিশ্বকাপ আছে। আসলে ওর এভেইলেবেলেটিটা আমরা নিশ্চিত না।’
পাপন আরও যোগ করেন, ‘অবশ্যই ও আমাদের প্রথম পছন্দ অধিনায়ক হিসেবে সবসময়ই ছিল, এখনও আছে। দুর্ভাগ্যবশত যেহেতু একটা অনিশ্চিত রয়ে গেছে, এটার মধ্যে আমরা থাকতে চাচ্ছি না। কাজেই আমরা সিদ্ধান্ত আর দেরি করতে চাইনি। এখন থেকে বিশ্বকাপের খুব বেশি দেরি নেই, এই সময়ে যেন স্মুথলি দলটা চলতে পারে; সেজন্য এই নামটা আমরা ঘোষণা করে দিয়েছি।’

সাকিবকে নিয়ে অনিশ্চয়তা থাকলেও ২০২৪ সালের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে তিন ফরম্যাটেই আছেন সাকিব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Verified by MonsterInsights