‘আমার খবর নেওনা কেন’ বলেই মারধর করলো ছাত্রলীগ নেতা

পিরোজপুর প্রতিনিধি

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক রায়হান আহমেদের উপর হামলা চালিয়ে গুরুতর জখম করার অভিযোগ পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক সভাপতি অনিরুজ্জামান অনিককে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

মঙ্গলবার (০২ এপ্রিল) সন্ধ্যায় পিরোজপুর শহরের এলজিডি অফিসের সামনে রায়হান আহমেদের উপর হামলার ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর পরই পুলিশ জেলা ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক সভাপতি অনিরুজ্জামান অনিককে আটক করেছ বলে জানান পিরোজপুর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আশিকুজ্জামান।

আটক অনিরুজ্জামান অনিক (৩৩) পিরোজপুর জেলা যুবলীগের সভাপতি আক্তারুজ্জামান ফুলুর পুত্র। গুরুতর আহত মঠবাড়িয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক রায়হান আহমেদকে উদ্ধার করে পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে আনা হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।
রায়হান আহমেদে জানান, সন্ধ্যার আগে তিনি মঠবাড়িয়া থেকে পিরোজপুর শহরে আসেন। পরে শহরের এলজিডি অফিসের কাজ শেষ করে বের হলে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি অনিরুজ্জামান অনিক কয়েকজন লোক নিয়ে তার গতিরোধ করে। এসময় অনিক তার কাছে জানতে চায়, তার ( অনিকের) খোঁজ খবর নেওনা কেন? এরপর নানা কথা বলে তাকে হঠাৎ করে মারতে শুরু করে। অনিক ও তার সাথে থাকা কয়েকজন মিলে অনেক সময় ধরে তাকে মারধর করে। এসময় স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়।

পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে কতর্ব্যরত চিকিৎসা ডা. রমজান আলী জানান, গুরুত্বর আহতাবস্থায় ছাত্রলীগ নেতা রায়হানকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

পিরোজপুর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আসিকুজ্জামান জানান, পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক রায়হান আহমেদকে মারধর ও চাঁদা দাবির অভিযোগ পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক সভাপতি অনিরুজ্জামান অনিককে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

পিরোজপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) শেখ মোস্তাফিজুর রহমান জানান, মঠবাড়িয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক রায়হান আহমেদ শহরের এলজিডি অফিসে থেকে বের হলে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি অনিরুজ্জামান অনিক লোকজন নিয়ে রায়হানের উপর হামলা চালিয়ে মারধর করে। পরে পুলিশ খবর পেয়ে আহত রায়হানকে উদ্ধার করে এবং অনিককে পুলিশ হেফাজতে নিয়ে আসে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Verified by MonsterInsights