কী কী সুবিধা পেয়ে থাকেন ভারতের লোকসভা সদস্যরা?

অনলাইন ডেস্ক

গত মঙ্গলবার শেষ হয়েছে ভারতের লোকসভা নির্বাচন। সেই ফল বলছে ভারতের মসনদে ফের বসতে যাচ্ছেন নরেন্দ্র মোদি। এবার দেখে নেয়া যাক ভারতের লোকসভার সদস্যরা কেমন বেতন ভাতা পেয়ে থাকেন।

ভারতের একজন কেন্দ্রীয় সংসদ সদস্য মাসে মূল বেতন পেয়ে থাকনে এক লাখ রুপি। মূল বেতনের পাশাপাশি তারা একাধিক ভাতা পান। লোকসভার সদস্যরা তাদের সংসদীয় এলাকায় পরিষেবা দেওয়ার জন্য প্রতি মাসে ৭০ হাজার রুপি ভাতা পান।

মূলত নিজের সংসদীয় এলাকায় দফতর খোলা এবং সেখানে নিযুক্ত কর্মীদের বেতন দেওয়ার জন্যই ওই ভাতা পেয়ে থাকেন একজন লোকসভা সদস্য।
এ ছাড়াও একজন লোকসভা সদস্য নিজস্ব দফতর চালানোর জন্য মাসে ৬০ হাজার রুপি ভাতা পেয়ে থাকেন।

সংসদের অধিবেশন চলার সময় কিংবা কোনো সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকের জন্য লোকসভা নির্বাচনের দিনে ২ হাজার রুপি করে ভাতা পান।

একজন সংসদ সদস্য ভারতের মধ্যে বছরে ৩৪ বার বিনামূল্যে বিমান সফর করতে পারেন। বিনামূল্যের বিমান সফরে সাংসদের সঙ্গে থাকতে পারেন তার নিকটাত্মীয়েরাও।

তাছাড়াও সারা বছর বিনামূল্যে ট্রেনের প্রথম শ্রেণির কামরার যাত্রী হতে পারেন লোকসভার সদস্যরা। ব্যক্তিগত কাজে কোথাও গেলেও বিনামূল্যে এই ট্রেন পরিষেবা মেলে। নিজের লোকসভা কেন্দ্রে গাড়ি নিয়ে ঘুরলে জ্বালানি তেলের খরচও দিয়ে দেওয়া হয় সাংসদদের।

প্রত্যেক লোকসভা সদস্যকে দিল্লির অভিজাত এলাকায় পাঁচ বছরের জন্য বাংলো বাড়ি দেওয়া হয়। তবে বাড়িটির আকার, অবস্থান কেমন হবে, তা নির্ভর করে একজন সাংসদ কত বার নির্বাচিত হয়েছেন তার উপরে। প্রথম বার সংসদে যাওয়া এমপির তুলনায় একাধিকবার জয়লাভ করা এমপিদের বাংলো বাড়ির আকার বৃদ্ধি পায়। দিল্লির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় থাকার সুযোগ পান প্রবীণ সংসদ সদস্যরা।

যারা কোনও কারণে সরকারি বাংলো কিংবা হস্টেলে থাকতে চান না, তাদের বাড়িভাড়া বাবদ মাসে ২ লক্ষ রুপি দেওয়া হয়। সংসদ সদস্যদের নিকটাত্মীয়রা সরকারি স্বাস্থ্য প্রকল্পের আওতায় বিনামূল্যে চিকিৎসা করাতে পারেন। সে ক্ষেত্রে তাদের দেশের যেকোনও সরকারি হাসপাতাল এবং প্রকল্পের আওতাধীন নির্দিষ্ট কিছু বেসরকারি হাসপাতালে যেতে হয়।

প্রতি বছর শুধু ফোন খরচ বাবদ লোকসভা সদস্যরা দেড় লক্ষ রুপি দেওয়া হয়। তাছাড়াও এমপিরা তার বাড়ি এবং দফতরে বিনামূল্যে উচ্চ গতির ইন্টারনেট পরিষেবা পেয়ে থাকেন।

সংসদ সদস্যরা বছরে ৫০ হাজার ইউনিট পর্যন্ত বিনামূল্যে বিদ্যুৎ পরিষেবা পেয়ে থাকেন। তা ছাড়াও ওই একই সময়ের মধ্যে একজন সংসদ সদস্য বিনামূল্যে চার হাজার কিলোলিটার পানি পেয়ে থাকেন।

এর বাইরেও সাবেক সংসদ সদস্যরা প্রতি মাসে ২৫ হাজার রুপি পেনশন হিসাবে পেয়ে থাকেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Verified by MonsterInsights