বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি ভ্রমণ করতে হবে বাংলাদেশ দলকে

অনলাইন ডেস্ক

শুরু হয়েছে টি-২০ বিশ্বকাপ। স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্র আজ দ্বিতীয় ম্যাচ খেলবে। ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, দক্ষিণ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড মাঠে নেমেছে। কিন্তু বাংলাদেশ এখনো মাঠে নামেনি। ৮ জুন প্রথম ম্যাচ খেলবে। প্রতিপক্ষ ২০১৪ সালের টি-২০ বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন শ্রীলঙ্কা। সেই ম্যাচ খেলার পূর্ণ প্রস্তুতি নিচ্ছে নাজমুল হোসেন শান্তর নেতৃত্বে টাইগাররা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও যুক্তরাষ্ট্রের নয়টি ভেন্যুতে হচ্ছে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। আয়োজক হিসেবে দু’টি নাম থাকলেও কার্যত বিশ্বকাপ হচ্ছে সাতটি দেশে। কারণ, ওয়েস্ট ইন্ডিজের ছয়টি ভেন্যু মূলত ছয়টি ভিন্ন ভিন্ন দেশে। বিশ্বকাপের সূচি নিয়ে এরই মধ্যে সমালোচনাও উঠেছে। নিউইয়র্কে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচের পর শ্রীলঙ্কা স্পিনার মহীশ তিকশানা সরাসরিই বলেছেন, অন্যায্য সূচি ও লজিস্টিক্যাল অব্যবস্থাপনার শিকার হয়েছেন তাঁরা। এ ব্যাপারে আইসিসির কাছে লিখিত অভিযোগও নাকি জানিয়েছে শ্রীলঙ্কা দল।

এদিকে উইজডেন ক্রিকেটের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে সবচেয়ে বেশি ভ্রমণ করতে হবে বাংলাদেশ দলকে।
প্রস্তুতি ম্যাচ থেকে শুরু করলে চারটি দল—বাংলাদেশ, নেদারল্যান্ডস, শ্রীলঙ্কা ও স্কটল্যান্ড তাদের ‘বেজ’ বা ‘ঘাঁটি’ বদলাবে চারবার করে। ডালাসে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচটি খেলার কথা ছিল বাংলাদেশের, যদিও বৃষ্টিতে ভেসে যায় সেটি। এরপর তারা নিউইয়র্কে যায় ভারতের সঙ্গে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে। সেখান থেকে আবার ডালাসে ফেরে নাজমুল হোসেনের দল, সেখানে শ্রীলঙ্কার সঙ্গে গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচ।

এরপর আবার নিউইয়র্কে যাবে তারা, সেখানে প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা। সেখান থেকে দল যাবে সেন্ট ভিনসেন্টের কিংসটাউনে। গ্রুপ পর্বের শেষ দুটি ম্যাচ সেখানেই। সব মিলিয়ে বাংলাদেশ ভ্রমণ করবে ৯ হাজার ৯২১ কিলোমিটার। গ্রুপ পর্বে অন্য যেকোনো দলের চেয়ে যা বেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Verified by MonsterInsights