রংপুরে চাঁদাবাজির ঘটনায় ৭ জনকে গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর
রংপুরে সাংবাদিক ও যুবলীগের নেতা পরিচয়ে চাঁদাবাজির ঘটনায় ৭ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার দুপুরে তাদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হল, নগরীর কেরানীপাড়া স্টাফ কোয়ার্টারের আফসার আলীর ছেলে মোঃ আরিফ হোসেন (৩৩), গণেশপুরের আব্দুল সালামের ছেলে ওয়াদুদ আলী রহিম (৩৩), গুড়াতিপাড়ার সাইফুল ইসলামের ছেলে ইকবাল হোসেন (৪০), দেওডোবার দিলদার হোসেনের ছেলে সাব্বির হোসেন (২৭), মুন্সিপাড়ার ফজলুল হকের ছেলে নাইমুল হক নাইম (৩২), রাধাবল্লভের আবু বকর সিদ্দিকের ছেলে জুবায়ের আলম (৩০) ও মুন্সিপাড়ার তরিকুল ইসলামের ছেলে সোহানুর রহমান সোহান (৩০)।
মামলার এজাহার সূত্রে জানাগেছে, নগরীর আশরতপুর এলাকায় সাড়ে ৮ শতক জমিতে বহুতল ভবন নির্মাণ করছেন পীরগঞ্জ খালাশপীরের আফজাল হোসেনের ছেলে হাফিজ আল আসাদ। গত ১১ মে বিকেলে অভিযুক্তরা নিজেদের সাংবাদিক ও যুবলীগের নেতা হিসেবে পরিচয় দিয়ে নির্মাণ শ্রমিকদের মারপিটসহ জমির মালিকের কাছে ৩ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না দিলে ভবন নির্মাণের কাজ বন্ধ করে দেয়াসহ নির্মাণ সামগ্রী তুলে নিয়ে যাবে বলে হুমকি দেয়। খবর পেয়ে ভুক্তভোগী হাফিজ আল আসাদ তাজহাট থানা পুলিশকে অবগত করলে মেট্রোপলিটন কোতয়ালী থানা, পরশুরাম থানার সহযোগিতায় রবিবার রাতে নগরীর বুড়িরহাট এলাকা থেকে অভিযুক্ত ৭ জনকে গ্রেফতার করে তাজহাট থানা পুলিশ। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী হাফিজ আল আসাদ ৭ জনের বিরুদ্ধে তাজহাট থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

তাজহাট থানার ওসি রবিউল ইসলাম বলেন, অভিযুক্তরা নিজেদেরকে সাংবাদিক ও রাজনৈতিক দলের নেতা হিসেবে পরিচয় দিয়ে চাঁদাবাজি করে আসছিল। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

রংপুর জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান সিদ্দিকী রনি বলেন, গ্রেফতারকৃতদের কেউ জেলা যুবলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত নয়। তবে গ্রেফতারকৃত আরিফ বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি বলে আমি জানি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Verified by MonsterInsights